অর্থনীতিখেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্মপ্রযুক্তিরুপসী বাংলালাইফস্টাইলসীমানা পেরিয়েস্বাস্থ্যপাতা

তালতলীতে বন্দোবস্তীয় খাস জমি জবর দখলের চেষ্টা

এস এম আবুল হাসান | নিজস্ব প্রতিবেদক | বরগুনার তালতলীতে ভূমিহীন আবুল কালামের সরকার থেকে বন্দোবস্তীয় খাস জমি জবরদখলের পায়তারার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালী আঃ হক ডা. ও তার দল-বলের বিরুদ্ধে। এব্যাপারে আবুল কালাম বাদী হয়ে দখলকারীদের বিরুদ্ধে তালতলী থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে। উপজেলার ৬নং নিশানবাড়ীয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মড়ানিদ্রা এলাকায় এমন ঘটনা ঘটেছে।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায় উক্ত জমিতে গত ৪০ ধরে বাড়ি-ঘর নির্মান করে শান্তিপূর্ণভাবে ভোগদখল করে আসছিলেন আবুল কালামের পরিবার। উপজেলার ছোট নিশানবাড়ীয়া মৌজার ৪১নং জে এল, ১নং খতিয়ান, ৪০৪৩ নং দাগে ২০০৬/৭ এ সরকার থেকে ১একর সম্পত্তি বন্দোবস্ত পায় এবং সেখানে তারা ৬ ভাই বসবাস করতে থাকেন। কিছু অসাধু ব্যাক্তি ক্ষমতার অপব্যবহার করে এ জমি থেকে তাদেরকে উৎখাত করে দিয়ে নিজেদের দখলে নিতে চায় বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, গত ১ তারিখ থেকে এলাকার প্রভাবশালী মৃত ফজলুল হক মাস্টারের ছেলে আঃ হক ডাক্তার, রুহুল আমিন, এবং মৃত্যু ফরমান আলী হাওলাদারের ছেলে আলম মিয়াসহ ভূমিখেকোকের একটি দল জমি দাতাকে সেখান থেকে উৎখাত করে দেয়ার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। দিনমজুর এই ছয় ভাই বর্তমানে প্রভাবশালীদের হুমকিতে রয়েছে বলে জানা যায়।

আবুল কালাম জানায়, আমরা গরীব অসহায় ও দিনমজুর মানুষ। কোনো মতে ঝুপড়ি-ঝাপড়িতে বসবাস করছি। আমরা সরকার থেকে বন্দোবস্ত পাওয়া  এক একর সম্পত্তিতে ৬ ভাই থাকি। এরই মধ্যে অন্য ১টি পরিবার জুলুম করে ঘর নির্মান করেছে এবং এ জমি জবর দখলের জন্য দীর্ঘদিন ধরে পায়তারা চালাচ্ছে এলাকার আঃ হক ডাক্তার।

এই জমি দখলে নেয়ার জন্য গত ১জুন থেকে প্রতিনিয়ত হুমকি দিয়ে আসছে আমাদেরকে। আমাদের উপর তারা জুলুম করলেও কেউ মাথা নাড়া দিচ্ছেন না এমন বিষয় নিয়ে।

এবিষয়ে আঃহকের কাছে জানতে চাইলে তিনি আবুল কালামের খাস জমির কথা শিকার করে অন্যান্য বিষয় এরিয়ে গিয়ে বলেন, সেখানে আমার রেকর্ডীয় জমি আছে।

এবিষয়ে তালতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) কাওসার হোসেন জানায়, সরকার আবুল কালামকে জমি বন্দোবস্ত দিয়েছে বিধায় এ-ই জমি রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব তার। সে চাইলে আইনের সরনালাপন্ন হতে পারে।

0Shares

Comment here