অর্থনীতিখেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্মপ্রযুক্তিরুপসী বাংলালাইফস্টাইলশিক্ষাঙ্গনসীমানা পেরিয়েস্বাস্থ্যপাতা

আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িকতা ও উগ্রবাদের জন্ম দিচ্ছে: মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক দিগন্তর | গণতান্ত্রিক পথ বন্ধ করে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ দেশে সাম্প্রদায়িকতা ও উগ্রবাদের জন্ম দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ অত্যন্ত সচেতনভাবে উদার গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা ধ্বংস করে দিয়ে আবারও একদলীয় শাসন ব্যবস্থা ছদ্মবেশে প্রতিষ্ঠা করার কাজ শুরু করেছে। তারা এই দেশে উদার গণতান্ত্রিক রাজনীতি বন্ধ করে দিচ্ছে এবং আজকে এখানে সাম্প্রদায়িকতা ও উগ্রবাদের জন্ম দিচ্ছে।

রোববার বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৪০তম শাহাদাতবার্ষিকীতে শেরেবাংলা নগরে তার কবরে শ্রদ্ধা জানানোর পর তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের যে মুক্ত সমাজ ব্যবস্থা তাকে হরণ করা হয়েছে, মুক্ত সাংবাদিকতাকে হরণ করা হয়েছে এবং একটা নির্যাতনমূলক-নিবর্তনমূলক শাসনব্যবস্থা চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে।

শহীদ জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে রোববার ভোরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত করে কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল সাড়ে ৯টায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুকে নিয়ে জিয়াউর রহমানে কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বিএনপি মহাসচিব। পরে তার রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন তারা।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, কায়সার কামাল, মাসুদ আহমেদ তালুকদার, মহিলা দলের আফরোজা আব্বাস, সুলতানা আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা দলের ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, সাদেক আহমেদ খান প্রমুখ নেতারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

মহানগর বিএনপি, যুব দল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্র দল, মহিলা দল মুক্তিযোদ্ধা দল, ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন- ড্যাব, এগ্রিকালচারিস্ট অ্যসোসিয়েশন- এ্যাব, জাতীয় সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা- জাসাসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকেও জিয়ার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে রাজধানীর দক্ষিণ ও উত্তরের মোট ১৯টি স্থানে দুঃস্থদের মাঝে খাবার সামগ্রী ও বস্ত্র বিতরণ কর্মসূচিতে অংশ নেন বিএনপি মহাসচিবসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

 

0Shares

Comment here