অর্থনীতিখেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্মপ্রযুক্তিবিনোদনরুপসী বাংলালাইফস্টাইলশিক্ষাঙ্গনসীমানা পেরিয়েস্বাস্থ্যপাতা

শতকরা ৪০ ভাগ কৃষি খাতে বরাদ্দের দাবিতে জয়পুরহাটে সমাবেশ

আক্কেলপুর (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি | করোনা বিধ্বস্ত অর্থনীতি পুনর্গঠনে আগামী বাজেটে কৃষি খাতকে অগ্রাধিকার দিয়ে উন্নয়ন বাজেটের শতকরা ৪০ ভাগ কৃষি খাতে বরাদ্দের দাবি জানিয়েছে জয়পুরহাট জেলা সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্ট।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সকাল সাড়ে ১১ টায় জয়পুরহাট জেলা শহরের জাতীয় বাজেটের ৪০ ভাগ কৃষিতে বরাদ্দ, সামরিক বাহিনীর দরে গ্রামীণ রেশনিং ব্যবস্থা চালুর দাবিতে জেলা সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের উদ্যোগে প্রধান প্রধাণ সড়কে মিছিল শেষে কেন্দ্রীয় মসজিদ চত্বরের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের আহ্বায়ক ওয়াজেদ পারভেজ এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, জেলা বাসদ সদস্য উৎপল দেবনাথ, জেলা ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের সদস্য সুন্দরী উরাও, জেলা ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্টের সদস্য সুধারাম প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, করোনা ভাইরাসের এই বৈশ্বিক মহামারী আবারো দেখিয়ে দিল কৃষি-কৃষক, অর্থনীতি ও দেশ বাঁচাতে কৃষি খাতকে গুরুত্ব দেয়ার কোন বিকল্প নেই। বিশেষ করে আমাদের দেশে যেখানে কৃষিতে মোট শ্রমশক্তির শতকরা ৫৪ ভাগ যুক্ত, শতকরা ৮০ ভাগ মানুষ কোন না কোনভাবে কৃষির উপর নির্ভরশীল সেখানে কৃষিই পারে অর্থনীতিকে বাঁচাতে। কিন্তু আমাদের দেশে শাসকশ্রেণি বরাবরই কৃষি খাতকে অবহেলা করে আসছে যার প্রকাশ চলতি সোয়া ৫ লক্ষ কোটি টাকা বাজেটে কৃষি খাতে বরাদ্দ মাত্র শতকরা ৩.৫ ভাগ।

কৃষক নেতা ওয়াজেদ পারভেজ বলেন, উন্নয়ন বরাদ্দের শতকরা ৪০ ভাগ কৃষিখাতে বরাদ্দ, প্রতি ইউনিয়নে ক্রয়কেন্দ্র খুলে সরকারি উদ্যোগে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ফসল কেনা, ক্ষেতমজুরদের সারা বছর কাজ ও গ্রামীণ রেশনিং চালু করতে হবে।

চৈতন্য চ্যাটার্জী
আক্কেলপুর, জয়পুরহাট।

0Shares

Comment here