অর্থনীতিখেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্মপ্রযুক্তিরুপসী বাংলালাইফস্টাইলশিক্ষাঙ্গনসীমানা পেরিয়েস্বাস্থ্যপাতা

রাজধানীর হাতিরঝিল এলাকায় অপহরণের শিকার এক নারী-গুরুতর অবস্থায় আশুলিয়া থেকে উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক | দিগন্তর | গতকাল  (২২শে মে) শনিবার আনুমানিক রাত দশটার দিকে হাতিরঝিল থানা এলাকার রামপুরা উলন, পোড়াবাড়ী হইতে মোসাঃ শাহিনুর বেগম (৪৫) নামে এক নারীকে অপহরণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরবর্তীতে রাত দেড়টার দিকে গুরতর আহত অবস্থায় সাভার বাইপাইল, আশুলিয়া থানার নিকট হইতে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে আশুলিয়া থানায় এবং পরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

এবিষয়ে মোসাঃ শাহিনুর বেগম এর পুত্র মোঃ সানোয়ার হোসেন (২৬) হাতিরঝিল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে সানোয়ার হোসেন বলেন, গতকাল শনিবার রাত আনুমানিক দশটার দিকে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্ত এসে আমার মা’কে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। ঐ সময় ঐ ব্যাক্তি জনৈক সাম্মী ইসলামের সঙ্গে টাকা-পয়সার লেনদেনের ব্যাপারে মনিরা চৌধুরী তাকে তার বাসায় ডেকেছেন বলে যেতে বলেন।

এর কিছু ক্ষন পর আমার মাকে মোবাইল ফোনে ফোন দিলে তার নাম্বার বন্ধ পাই। মনিরা চৌধুরীর বাসা সহ বিভিন্ন জায়গায় অনেক খোঁজা খুঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এরপর রাত ০১.১০ মিনিটের দিকে আমার মায়ের মোবাইল ফোন হইতে অজ্ঞাতনামা এক ব্যাক্তি আমাকে ফোন করে বলেন, একজন মহিলা অজ্ঞান অবস্থায় বাইপাইল আশুলিয়া থানার নিকট পড়ে আছে। উক্ত সংবাদ পাইয়া আমি আমার পিতা সহ উক্ত স্থানে আমার মা’কে অজ্ঞান ও রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করি এবং আশুলিয়া থানায় নিয়ে যাই। তারা দ্রুত আমার মাকে হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দিলে আমরা তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করাই। রাত আনুমানিক চার ঘটিকার সময় আমার মায়ের জ্ঞান ফিরলে সে জানায়, মনিরা চৌধুরীর বাসায় যাওয়ার পথে জমিদার গলির মুখ হতে মনিরা চৌধুরী (৩২), শাম্মী ইসলাম ওরফে পারভিন (৩৫), রাজু (২৮) সহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন আমাকে ধরে নিয়ে মুনিরার উলন রোডের বাসায় আটক রাখে এবং হত্যার উদ্দেশ্যে তারা ছুড়ি দিয়া আমার দুই পায়ের রগ কেটে দেয় ও মাথায় ইট দিয়া আঘাত করে। একপর্যায়ে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়লে তারা একটি মাইক্রোবাসে করে আমাকে আশুলিয়া নিয়ে ফেলে দেয়।

এলাকাবাসী শাহিনুর বেগমের উপর বর্বরোচিত এ হামলার তীব্র নিন্দা এবং দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছেন।

তারা বলেন মনিরা চৌধুরী একজন চিন্হিত মাদক ব্যাবসায়ী। ইতোপূর্বে তার নামে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অনেক অভিযোগ রয়েছে। এলাকায় টাকা সুদে কারবারীর জন্য তার রয়েছে বিশাল সন্ত্রাসী বাহিনী। যে বাহিনি দ্বারা মনিরা চৌধুরী বহাল তবিয়তে চালিয়ে যাচ্ছে এ ধরনের ঘৃণিত অপরাধ। তার অত্যাচার থেকে বাচতে এলাকার মানুষ তার নামে বিভিন্ন লিফলেট দিয়েও রেহাই পাচ্ছেন না বলে জানান।

0Shares

Comment here