জাতীয়লাইফস্টাইলশিক্ষাঙ্গনসীমানা পেরিয়ে

কঠোর নিষেধাজ্ঞার দ্বিতীয় দিন বেড়েছে জনসমাগম ও যান চলাচল

 

আফজাল আহমেদ  : করোনা সংক্রমণ রোধে চলছে দেশব্যাপী কঠোর নিষেধাজ্ঞা। গতকাল বুধবার থেকে কঠোর এই নিষেধাজ্ঞা শুরুর প্রথম দিন রাজধানীর সড়কে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কড়াকাড়িতে যান চলাচল ও জনসমাগম কম থাকলেও তা বেড়ে গেছে দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল)।

বুধবার পহেলা বৈশাখের জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। আজ (১৫ এপ্রিল) খুলেছে বিভিন্ন পোশাক কারখানা, ব্যাংক, শেয়ারবাজারসহ বিভিন্ন শিল্পপ্রতিষ্ঠান। এজন্য সকাল থেকে সড়কে যান চলাচল বেড়েছে। সরকার ব্যাংক ও শিল্পকারখানাসহ বিভিন্ন জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান কঠোর নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত রেখেছে। যে কারণে বেড়েছে মানুষের চলাচল।

কঠোর নিষেধাজ্ঞার মধ্যে কারওয়ানবাজারে বিআরটিসি’র বাস

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, আইশৃঙ্খলা বাহিনী গতকালের (১৪ এপ্রিল) তুলনায় কিছুটা নমনীয়। চেকপোস্টগুলোতে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যের সংখ্যাও কম। প্রথম দিন বিভিন্ন যানবাহন ও মানুষকে বাইরে বের হওয়ার জন্য পড়তে হয়েছে পুলিশী জেরার মুখে। আজ সে পরিস্থিতি খুব একটা দেখা যায়নি। অবশ্য প্রথম দিনের মতোই ব্যারিকেড দিয়ে বন্ধ রাখা হয়েছে শহরের বিভিন্ন সড়ক। জনসমাগম ও যানবাহনের চাপ বাড়ায় সকালে হালকা যানজট দেখা গেছে রামপুরা সড়কে। হাতিরঝিলের দুই মাথায় চেকপোস্টগুলোতে ছিল না বুধবারের মতো কড়াকড়ি। কারওয়ান বাজার মোড়ে চলতে দেখা গেছে বিআরটিসি’র এসি বাসও।

কঠোর নিষেধাজ্ঞার দ্বিতীয় দিন

এদিকে সকালে গাবতলীর আমিন বাজারে রাজধানীতে প্রবেশ এবং বের হওয়ার উভয় পয়েন্টে গাড়ির দীর্ঘ সারি চোখে পড়েছে। এখানে পুলিশের পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষের বাইরে বের হওয়ার কারণ কঠোরভাবে যাচাই-বাছাই করতে দেখা যায়। অনিয়মের বিষয়টি বেশি দেখা গেছে পাড়া-মহল্লায়। অনেকেই ঘরের বাইরে বের হলেও স্বাস্থ্যবিধির কোন বালাই ছিলো না। এসব জায়গায় প্রশাসনের অনুপস্থিতিও ছিলো চোখে পড়ার মতো।

র‍্যাবের ভ্রাম্যমান আদালতের তৎপরতা

এদিকে বেলা ১১টা থেকে রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে র‍্যাব-৩-এর সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু। তিনি বলেন, জরিমানা করা র‍্যাবের উদ্দেশ নয়। র‍্যাবের উদ্দেশ করোনা প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টি করা এবং সরকারের সর্বাত্মক কঠোর নিষেধাজ্ঞা মানার পরিবেশ তৈরি করা। আইন অমান্য করে যারা বিনা কারণে বাইরে ঘোরাঘুরি করবেন, মুভমেন্ট পাস না নিয়ে বাইরে বের হবেন এবং স্বাস্থ্যবিধি মানবেন না তাদেরকে জরিমানা করা হবে বলে সতর্ক করেছেন তিনি।

0Shares

Comment here