জাতীয়ধর্মকর্মরাজনীতিরুপসী বাংলালাইফস্টাইলশিক্ষাঙ্গনসীমানা পেরিয়ে

ভোলার তজুমদ্দিনে হিজড়াদের তান্ডবে, শিশুর পিতা রক্তাক্ত

টিটু মজুমদার তজুমদ্দিন প্রতিনিধি : ভোলার তজুমদ্দিনে দাবিকৃত চাঁদা না দেয়ায় নবজাতকের বাবা, মা ও জেঠাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে পাঁচ হিজড়ার একটি দল। আজ (মঙ্গলবার) সকালে তজুমদ্দিন উপজেলার আড়ালিয়া গ্রামের মজুমদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, আট মাস বয়সী কন্যাশিশু আছে জানতে পেরে তৃতীয় লিঙ্গের সকাল, শিলা, নীলা, মারিয়া, রিয়া, শিশুটির বাবা রতন মজুমদার (শুভ) এর কাছে এগারো হাজার টাকা দাবি করে। শিশুটির পরিবার একটি শাড়ি, চাল ও নগদ সাতশো টাকা দিতে চাইলে উত্তেজিত হয়ে বিবস্ত্র অবস্থায় অশ্রাব্য গালি দিতে থাকে।

একপর্যায়ে উত্তেজিত হিজড়াদের সাথে বাকবিতন্ডায় লিপ্ত হলে তারা রতন মজুমদার এর স্ত্রী মন্দিরা ও ভাই রিতন মজুমদারকে লাঠি দিয়ে আঘাত করে। এতে রতন মজুমদারের মাথা ফেঁটে যায়, এবং হিজড়াদের দু’জন আহত হয়।

শিশুটির মা মন্দিরা রানী জানান, দীর্ঘ এগারো বছর পরে তাঁদের এ সন্তান জন্ম নেয়। এমন ঘটনা আর কারো সাথে যেন না হয় এমনই দাবি জানান সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিদের প্রতি। তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইন চার্জ এস এম জিয়াউল হক জানান, কেউ অভিযোগ করেনি, উভয় পক্ষ আপোষ করেছে।

এদিকে ভোলা জেলার তৃতীয় লিঙ্গের গুরুমা পায়েল(৩৫) জানান, দ্বীপজেলাটিতে পাঁচশত বারোজন হিজড়া আছে। সামাজিক অবজ্ঞা তাঁদেরকে চাঁদা দাবি করতে বাধ্য করেছে। তাঁদের পরিবার লোকলজ্জার ভয়ে তাদেরকে কাছে রাখতে চায়না। সরকারের কাছে গণমাধ্যমের মাধ্যমে তারা যথাযথ পূনর্বাসনের দাবি জানান।

0Shares

Comment here