জাতীয়রুপসী বাংলালাইফস্টাইলশিক্ষাঙ্গনসীমানা পেরিয়ে

ইসলামপুরে গফুর জোদ্দার”র বাড়ী ভাংচুর, লুটপাট ও কুপিয়ে জখমের অভিযোগে বক্কর গংদের বিরুদ্ধে মামলা

এস.এম হোসেন রানা, ইসলামপুর প্রতিনিধি:  জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলার নোয়ারপাড়া ইউনিয়নের করিরতাইড় গ্রামের আব্দুল গফুর জোদ্দার”র বসতবাড়ী ভাংচুর, কুপিয়ে মারাত্মক জখম এবং প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্থানীয় দুলাল ও বক্কর গংদের বিরুদ্ধে হয়েছে।
জানাগেছে জমিজমা বিরোধের জের ধরে গত ২১ মার্চ বেলা ১২ টার সময় বক্কর ও দুলাল খানের নেতৃত্বে প্রায় শতাধিক সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে রামদা, ফালা, কুড়াল, ঢেগার, সাবল,লোহার রড ও লাঠিসোঠা নিয়ে আক্রমণ চালায়। এতে ৭টি ঘর, স্বর্ণের অলংকার, ১টি টিভি, ডিসকভার ১০০ সিসি  মটর সাইকেল, নগদ টাকা, ভ্যানগাড়ী, ঘরে থাকা কাপড় ও মূল্যবান কাগজপত্রাদি দিনের বেলায় লুটপাট করে নিয়ে যায়। লুটপাটের সময় তাদের বাধা দিলে মকবুল, ফারুক, হাবিবুল্লাকে সন্ত্রাসীরা রাম দা, ঢেগার, কুড়াল দেশীয় অস্ত্রধারা এলোপাথাড়ীভাবে কোপাতে থাকে। এক পর্যায়ে মকবুল ও হাবিবুল্লা মাটিতে রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়লে এলাকাবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে পরে অবস্থার অবনতি হলে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। জামালপুর  জেনারেল হাসপাতালে  নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসা তাদের অবস্থা আরোও খারাপ হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে।
মকবুল বেস কয়েকদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে কিছুটা সুস্থ্য হয়ে বাড়ীতে আসলেও সে এখনো কথা বলতে পারে না।
অপর দিকে হাবিবুল্লার অবস্থা অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ  মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হইতে ঢাকা বঙ্গবন্ধু  শেখ মুজিবর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। হাবিবুল্লাহ এখনও মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।  ভোক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা খোলা আকাশের নিচে মানবেতন জীবনযাপন করছে বলে জানাগেছে।এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ  চেয়ারম্যান মোঃ সুরুজ্জামানকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন- আমরা সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ বারী মন্ডলসহ এলাকার প্রায় ২ শতাধিক সুধী বৃন্দদের নিয়ে উভয় পক্ষকে আলোচনা সাপেক্ষে আঃ গফুর জোদ্দারকে ২ একর ৩৩ শতাংশ জমির মধ্যে ১২ শতাংশ জমি  দেয়া হলে তারা সেখানে বাড়ি ঘর করে বসবাস করে আসছে।

হঠাৎ করে ক্ষিপ্ত হয়ে বক্কর ও তার ভাতিজা দুলাল গংরা এভাবে তাদের বাড়ী ঘর ভাংচুর লুটপাট করবে যা তাদের উচিত হয়নি। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
এ ব্যাপারে আঃ গফুর বাদী হয়ে ইসলামপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং- ১৩, তারিখঃ ২২-০৩-২০২১ইং। তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ  কবির হোসেন দিগন্তরকে জানান মামলাটি তদন্ত চলছে।

0Shares

Comment here