অর্থনীতিখেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্মপ্রযুক্তি

ত্যাগী নেতাকর্মীদের দলে মূল্যায়ন করতে হবে: এডভোকেট মশিউর মালেক

গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি : বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী সভাপতি এডভোকেট মশিউর মালেক  বলেছেন, আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় ছিল না, তখন যারা নির্যাতন ও কষ্ট সহ্য করেছে, ২১ বছর বুকে পাথর বেঁধে দল করেছে, সেই সব ত্যাগী নেতাকর্মীদের দলে মূল্যায়ন করতে হবে। তবেই তৃণমূল পর্যায়ে দল সুসংগঠিত হবে।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) বিকেলে বঙ্গবন্ধু যুব ফাউন্ডেশন গাজীপুর গাছা থানা কর্তৃক আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর স্বদেশে প্রত্যাবর্তনেই স্বাধীনতার পূর্নতা শীর্ষক আলোচনা সভা এবং বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধ্যক্ষ বেলাল শাহ এর স্মরন সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী সভাপতি এড. মশিউর মালেক প্রধান বক্তা হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ খেটে খাওয়া মানুষের দল, এ দলে সুযোগ সন্ধানীদের কোন স্থান নেই’ উল্লেখ করে এড. মশিউর মালেক বলেন, যারা দলের জন্য নিবেদিত, তারাই আসন্ন স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রাধান্য যেমন পাবেন, তেমনি দলীয় ভাবেও পদ-পদবীতে স্থান পাবেন। অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করে তাদেরকে বিতাড়িত করা হবে।

মালেক বলেন, এক শ্রেণীর লোক আওয়ামী লীগকে নিরাপদ স্থান হিসাবে ব্যবহার করতে দলে ঢুকে পড়ছে। যারা অপকর্মে লিপ্ত, যারা অবৈধ আয়ের পথে রয়েছে, যারা অবৈধ আয়ের টাকা রক্ষা করতে মরিয়া, মূলত তারাই দলে অনুপ্রবেশকারী।

প্রধান অতিথি হিসেবে এসময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.এ কে আব্দুল মোমেন তার ভার্চুয়াল বক্তৃতায় বলেন বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ এ যেন এক অবিচ্ছেদ্য অংশ।বঙ্গবন্ধুর নামে গড়া বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি হতে পেরে তিনি দেশ নেত্রী প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার প্রশংসা করেন। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধ্যক্ষ বেলাল শাহ এর অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন। এবং তার বিদেহী আত্মার শান্তি ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

স্মরন সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য এড. নুরুল ইসলাম ঠান্ডু।  তিনি ১২ বছর আগের উন্নয়ন এবং এখনকার উন্নয়নের চিত্র মানুষের মাঝে তুলে ধরতে তৃণমূলের দলীয় নেতা কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন আজ থেকে এক যুগ আগে দেশের চেহারা কেমন ছিল তা ভাবতেই অবাক লাগে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী পুরো দেশের চেহারাটাই উন্নয়ন দিয়ে বদলে দিয়েছেন।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন এর কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রাশিদা হক কনিকা, ঢাকা মহানগর সভাপতি আহসান উল্লাহ ব্যাপারী, আবদুল মান্নান মিয়া যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ঢাকা মহানগর, এম, টিপু সুলতান সাধারণ সম্পাদক মতিঝিল থানা ও যুব ও ক্রিয়া বিষয়ক সম্পাদক কেন্দ্রীয় কমিটি।

বক্তব্য রাখেন গেন্ডারিয়া থানার সাধারন সম্পাদক ও ঢাকা মহানগর ক্রিয়া সম্পাদক মোঃ পিন্টু।

পরে কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধ্যক্ষ বেলাল শাহ এর স্মরণে তার বিদেহী আত্মার শান্তি ও মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

 

0Shares

Comment here