জাতীয়প্রযুক্তিরাজনীতিস্বাস্থ্যপাতা

র‍্যাবের ২ মামলায় হাজী সেলিমপুত্র ইরফানকে অব্যাহতি

দিগন্তর ডেস্ক : অস্ত্র ও মাদকের দুই মামলা থেকে ঢাকা-৭ আসনের এমপি হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিমকে অব্যাহতির সুপারিশ করা হয়েছে।

র‍্যাবের করা এ মামলায় ‘তথ্য-প্রমাণ না পাওয়ায়’ রোববার (৩ জানুয়ারি) এ ব্যাপারে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দিয়েছে লালবাগ থানা পুলিশ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফাইনাল রিপোর্ট অ্যাজ মিসটেক অব ফ্যাক্ট (এফআরএমএফ)।

মামলা দায়েরের দুই মাসের মাথায় এ প্রতিবেদন দেয়া হলো।

সোমবার (৪ জানুয়ারি) মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা চকবাজার থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন বলেন, ইরফান সেলিমের দেহরক্ষী জাহিদের বিরুদ্ধে চকবাজার থানার অস্ত্র ও মাদক আইনের মামলার অভিযোগ প্রাথমিকভাবে সত্যতা পাওয়ার তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দেওয়া হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখায় তা জমা পড়েনি।

এদিকে দুই মামলার অভিযোগ থেকে দায়মুক্তির কারণে তার বিরুদ্ধে আর একটি মামলা তদন্তাধীন। মামলাটি করেছিলেন নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিফ আহমেদ খান। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) মামলাটি তদন্ত করছে।

২০২০ সালের ২৫ অক্টোবর নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহমদ খান মোটরসাইকেল যোগে যাচ্ছিলেন। এ সময় সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইরফান সেলিমের গাড়িটি তাকে ধাক্কা মারে। এরপর তিনি সড়কের পাশে মোটরসাইকেলটি থামিয়ে গাড়ির সামনে দাঁড়ান এবং নিজের পরিচয় দেন। তখন গাড়ি থেকে ইরফানের সাথে থাকা অন্যরা একসঙ্গে তাকে কিল-ঘুষি মারেন এবং মেরে ফেলার হুমকি দেন।

ওই ঘটনার ভিডিও সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে দেশজুড়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

পরদিন এ ঘটনায় ইরফান সেলিম, তার বডিগার্ড মো. জাহিদ, এ বি সিদ্দিক দিপু এবং গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ অজ্ঞাত ২/৩ জনকে আসামি করে ওয়াসিফ আহমদ খান বাদী হয়ে ধানমন্ডি থানায় একটি মামলা করেন।

২৬ অক্টোবর পুরান ঢাকায় হাজী সেলিমের বাসায় দিনভর অভিযান চালায় র‍্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। এ সময় অবৈধ অস্ত্র ও মাদকদ্রব্য রাখার অভিযোগে ইরফানকে দেড় বছর ও তার দেহরক্ষীকে এক বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। এ মামলায় এজাহারভুক্ত চার আসামির সবাইকে গ্রেপ্তার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

ইরফান ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর। ঘটনার পর তাকে কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়।

0Shares

Comment here