খেলার মাঠেজাতীয়রকমারিরাজনীতি

ফের ৯ দিনের রিমান্ডে ‘গোল্ডেন মনির’

এসকে জামান :রাজধানীর মেরুল বাড্ডার নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার একজন সামান্য দোকানের কর্মচারী থেকে হাজার কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া মনির হোসেন ওরফে গোল্ডেন মনিরের আবার ৯ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) বাড্ডা থানার অস্ত্র, বিশেষ ক্ষমতা ও মাদক আইনের তিন মামলায় এ আসামির ১৮ দিনের রিমান্ড শেষ হয়। পরে প্রত্যেক মামলায় আরও ১০ দিন করে ৩০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ।

আসামিপক্ষের সিনিয়র আইনজীবী এহসানুল হক সমাজী রিমান্ড বাতিল চেয়ে শুনানি করেন। অন্য দিকে রাষ্ট্রপক্ষে ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু রিমান্ডের পক্ষে শুনানি করেন।

পরে ঢাকা মহানগর হাকিম মইনুল ইসলাম অস্ত্র ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় তিনদিন করে ছয়দিন এবং মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ মাদক মামলার তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে, গত ২০ নভেম্বর গভীর রাতে মনিরের বাড্ডার বনশ্রীর বাড়ি ঘিরে রাখে র‌্যাব। পরে ২১ নভেম্বর দুপুর পর্যন্ত টানা আট ঘণ্টার অভিযান শেষে ওই বাসা থেকে ৬০০ ভরি সোনার গয়না, বিদেশি পিস্তল-গুলি, মদ, ১০ দেশের বিপুল বৈদেশিক মুদ্রা ও নগদ এক কোটি নয় লাখ টাকা জব্দ করা হয়। এরপর গত ২২ নভেম্বর তিন মামলায় এ আসামির ১৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত।

ওইসময় জানা যায়, ঢাকা ও আশপাশের এলাকায় দুই শতাধিক প্লট ও ফ্ল্যাটের মালিক গোল্ডেন মনির। রাজউকের কয়েকজন কর্মকর্তার যোগসাজশে জালিয়াতির মাধ্যমে অসংখ্য প্লট হাতিয়ে নেন তিনি।

তবে প্রাথমিকভাবে ৩০টি প্লট ও ফ্ল্যাটের কথা স্বীকার করেছেন মনির। জব্দ করা হয়েছে দুটি বিলাসবহুল গাড়ি, যার প্রতিটির মূল্য তিন কোটি টাকা।

এদিকে গত ২১ নভেম্বর মনিরের দেশ থেকে পালানোর কথা ছিল বলেও জানিয়েছেন র‍্যাব কর্মকর্তারা।

0Shares

Comment here