অর্থনীতিজাতীয়প্রযুক্তিলাইফস্টাইল

শ্রীপুরে হয়দেবপুর গ্রামে ডিস ব্যবসায়ীর লাইন বিচ্ছিন্ন

দিগন্তর নিজস্ব  প্রতিবেদক : গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়ন হয়দেবপুর গ্রামের ডিস ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা না পেয়ে ডিস লাইনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিলেন এলাকার চিহ্নিত চাঁদাবাজ মোঃ পলাশ মন্ডল ও তার দলবল। এবিষয়ে ডিস ব্যবসায়ী মোঃ মাঈন উদ্দিন খান বাদী হয়ে ৩০ নভেম্বর ৪ জনকে অভিযুক্ত করে শ্রীপুর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযুক্তরা হলেন উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়ন হয়দেবপুর গ্রামের মোঃ আক্তার হোসেনের দুই ছেলে মোঃ পলাশ মন্ডল (২৮),মোঃ নাঈম মন্ডল (২৫), একেই এলাকার আঃ রশিদের ছেলে মোঃ সুজন (৩৩),সামসুল হকের ছেলে জাকির (৩৫)।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, অভিযুক্তকারীরা এলাকায় উশৃঙ্খল দাঙ্গাহাঙ্গামাকারী, চাঁদাবাজ প্রকৃতির লোক হিসেবে পরিচিত। বাদী মোঃ মাঈন উদ্দীন খান ৩ বছর আগে ১নং বিবাদীর সাথে যৌথভাবে ডিস লাইনের ব্যবসা করিয়া আসিতেছিলো। ১নং বিবাদী এলাকার বিভিন্ন অপরাধমুলক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকায় মোঃ মাঈন উদ্দীন খান এলাকার স্থানীয় লোকজনের উপস্থিতি এবং সহযোগিতায় ১নং বিবাদী মোঃ পলাশ মন্ডলের সকল পাওনা পরিশোধ করিয়া একক মালিকানায় ডিস লাইনের ব্যবসা করিয়া আসিতেছিলো। এতে বিবাদীগন মাইন উদ্দীন খানকে বিভিন্ন সময়ে হুমকী দিয়ে আসিতেছিলো।

গত কয়েকদিন আগে আরো দুইবার বিবাদীগন ডিসলাইনের ক্যাবল কেটে দিয়েছিলো। এ ব্যপারে মাইন উদ্দীন খান ১নং বিবাদী মোঃ পলাশ মন্ডলকে ক্যাবল কাটার বিষয়ে জিজ্ঞেস করিলে তিনি তার কাছে ৫লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে এবং চাঁদা না দিলে ডিস লাইনের ব্যবসা করতে দিবেনা বলে হুমকী দেয়। গত ২৭ নভেম্বর দিবাগত রাতে ১নং বিবাদী ও তার দলবল নিয়ে প্রায় ৫ কিঃমিঃ ডিসলাইনের ক্যাবল কেটে ফেলে এবং ৫০ টি পাওয়ার সাপ্লাই কেটে নিয়ে যায়। এতে প্রায় ৩শ বাড়ির ডিস লাইন হতে বঞ্চিত হয় গ্রাহক। যার ক্ষতিপুরণ প্রায় ২লক্ষ টাকার মত।

স্থানীয় এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, তাদের এলাকায় ডিস লাইনের সংযোগ কেটে দিলে ছাত্র-ছাত্রীরা অনলাইন ক্লাশ থেকে বঞ্চিত হয়ে পরেছে, ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়ার ব্যপক ক্ষতি হচ্ছে। তারা এই কুচক্রকারী মহলের বিচারের দাবী জানান।

এবিষয়ে শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোঃ ইমাম হোসেন বলেন এ বিষয়ে আমরা একটি অভিযোগ হাতে পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

 

0Shares

Comment here