জাতীয়রাজনীতিরুপসী বাংলা

জর্ডানের সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক |  মধ্যপ্রাচ্যে একের পর এক ঘটনা ঘটেই যাচ্ছে। এক সময় ছিলো ইরাক-ইরান যুদ্ধ। সে যুদ্ধের অবসানের পর শুরু হয় লিবিয়া, সিরিয়া, ইরাককে ধ্বংস করার মিশন। এবার শুরু হয়েছে অন্য দেশগুলোর ওপর হামলা। সম্প্রতি লেবাননের রাজধানী বৈরুতে বোমা বিস্ফোরণে পর এবার জর্ডানের সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়. জর্ডানের রাজধানী আম্মানের উত্তর-পশ্চিমে জারকা শহরে একটি সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে মিডল ইস্ট আই।

একটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, জারকা শহরের উপকণ্ঠে সামরিক ঘাঁটিটিতে একের পর এক বিস্ফোরণ ঘটেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে, আগুনের কুণ্ডলী ব্যাঙের ছাতার মতো রাতের আকাশের উপরের দিকে উঠে গিয়েছে। চারদিকে ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে যায়।

ঘটনা স্থলে আগুনের একাধিক স্ফুলিঙ্গ দেখা যায়। বিস্ফোরণের শব্দে শহরের বাসিন্দাদের ঘরবাড়ির জানালা চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে পড়ে।

জর্ডানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, জারকা শহরের পশ্চিমে ঘাবাবি এলাকায় এ বিস্ফোরণ ঘটে। যেখানে দেশটির একটি সামরিক ঘাঁটি রয়েছে।

এদিকে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির গণমাধ্যম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী আমজাদ আদাইলেহ জানান, অনধ্যুষিত এলাকায় অব্যবহৃত মর্টার বোমা রাখার একটি গুদাম ঘরে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বৈদ্যুতিক গোলযোগ থেকে এ বিস্ফোরণের উৎপত্তি বলে তিনি জানান।

এক বিবৃতিতে আদাইলেহ বলেন, ‘সামরিক জেনারেল কমান্ড সূত্রে জানা গেছে যে, বিস্ফোরণের ফলে এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের হতাহতের ঘটনা সামনে আসেনি।

এদিকে লেবাননের রাজধানী বৈরুতের আরেকটি বন্দরে ফের বড় ধরনের বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ঠিক এক মাস পাঁচদিন আগে শহরটিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে প্রায় ২০০ মানুষ প্রাণ হারান।

একইভাবে ইরানেও গত কয়েক মাসে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সামরিক ও পরমাণু স্থাপনায় রহস্যজনকভাবে একাধিক বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

0Shares

Comment here