খেলার মাঠেজাতীয়রকমারিলাইফস্টাইলস্বাস্থ্যপাতা

অনুপ্রেরণার অপর নাম বঙ্গমাতা: এসএম কামাল

সোহান খান | আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেছেন, টুঙ্গীপাড়ার সন্তান শেখ মুজিবুর রহমান দীর্ঘ আপোসহীন লড়াই-সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় ধীরে ধীরে শুধুমাত্র বাঙালি জাতির পিতাই নন, বিশ্ববরেণ্য রাষ্ট্রনায়কে পরিণত হয়েছিলেন। এর পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন তার সহধর্মিণী বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব। অনুপ্রেরণার অপর নাম বঙ্গমাতা, সাহস ও ত্যাগের প্রতীকের নাম বঙ্গমাতা।

শনিবার (৮ আগস্ট) বিকালে জয়পুরহাট পৌর আওয়ামী লীগ আয়োজিত বঙ্গমাতা বেগম শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবাষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। ঢাকার বাসভবন থেকে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন তিনি।

এসএম কামাল হোসেন বলেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব প্রচারবিমুখ ছিলেন। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ছায়ার মতো আগলে রেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, যতদিন কারাগারে ছিলেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব নিবেদিতভাবে নীরবে-নিভৃতে বাঙালি জাতিকে সুসংগঠিত করে বাঙালির স্বাধিকার আন্দোলন, স্বাধীনতার সংগ্রাম এগিয়ে নিয়ে চলে ছিলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গমাতা ছিলেন বলেই জাতির পিতা মন্ত্রীত্ব ছেড়ে দিয়ে দলের হাল ধরে সংগঠনকে শক্তিশালী করেছিলেন। একজন সাধারণ বাঙালি নারীর মতো স্বামী-সংসার, আত্মীয়-স্বজন নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও বাংলাদেশের মহা সংগ্রাম, মুক্তিযুদ্ধ এবং স্বাধীনতার পর দেশ পুনর্গঠনে তিনি অনন্য ভূমিকা রেখে গেছেন। বঙ্গবন্ধু যখন কারাগারে থাকতেন, তখন দলীয় নেতাকর্মীর ঠিকানা ছিল বঙ্গমাতা। অবস্মরণীয় ও অনুকরণীয় নারীর অপর নাম বঙ্গমাতা।

পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি আজম আলী মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সামছুল আলম দুদু এমপি, সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম সোলায়মান আলী, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রাজা চৌধুরী, শেখর মজুমদার, জাহিদুল আলম বেনু, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হোসেন হিমু প্রমুখ।

0Shares

Comment here