জাতীয়প্রযুক্তিরাজনীতি

বামনায় সিফাতের মুক্তির দাবি: মানববন্ধনে পুলিশের বাধা

জেলা প্রতিনিধি বরগুনাঃ অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ খান নিহতের ঘটনায় গ্রেপ্তার প্রত্যক্ষদর্শী সাহেদুল ইসলাম সিফাতের মুক্তি চেয়ে করা মানববন্ধনে পুলিশি বাধার অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার দুপুর ১২টায় বরগুনার বামনা উপজেলার কলেজ রোড এলাকায় সিফাতের সহপাঠিরা মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু করলে পুলিশ বাঁধা দেয়। সেসময় ব্যানার ও মাইক ছিনিয়ে নেয় পুলিশ।

তারপরও সিফাতের বন্ধুরা মানববন্ধন চালিয়ে গেলে বামনা থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) ইলিয়াস আলী তালুকদার ঘটনাস্থলে গিয়ে মানববন্ধনরত শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিতে লাঠিপেটা করেন। এতে অন্তত ১০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

মানবন্ধনের আয়োজক বামনা সারওয়ারজান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক এক শিক্ষার্থী মনোতোষ হাওলাদার বলেন- ‘‘সিফাত আমাদের সহপাঠি ও একই এলাকার বাসিন্দা। তিনি মেজর সিনহা রাশেদ খান হত্যার একমাত্র প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষী। তাকে আটক করে দুটি মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। বিনা অপরাধে এতবড় ঘটনার একজন সাক্ষীকে জেলে প্রেরণ কিছুতেই কাম্য নয়।

‘আমরা দ্রুত সিফাতের মুক্তি দাবি করছি, একইসাথে মেজর সিনহা রাশেদ খানের হত্যার ঘটনায় জড়িত পুলিশ সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।”

বামনা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইলিয়াস আলী তালুকদার মুঠোফোনে জানান, এটি একটি রাষ্ট্রীয় স্পর্শকাতর বিষয়। আইন-শৃঙ্খলা বজায়ও নিরাপত্তা রাখার স্বার্থে পুলিশ সদস্যরা কাজ করেছে। কাউকে লাঠিপেটার ঘটনা ঘটেনি।

0Shares

Comment here