খেলার মাঠেজাতীয়রকমারিস্বাস্থ্যপাতা

ভোলায় গনমাধ্যম-পেশাজীবিদের মানববন্ধন প্রতিবাদসভা,স্মারকলিপি পেশ 

মাসুদরানা ভোলা জেলা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি | ভোলায় মিথ্যে ও ষড়যন্ত্রমুলক মামলায় গ্রেপ্তারকৃত সাংবাদিক মাহমুদুল হক রাসেল খান’র মুক্তির দাবীতে বৃহস্পতিবার ভোলা প্রেসক্লাব চত্বরে মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা করেছেন গনমাধ্যমকর্মী ও প্রেশাজীবিরা। ভোলা জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটি, দৈনিক ভোলা টাইমস পরিবার, দৈনিক সমকন্ঠ, দৈনিক অন্যদিগন্ত ও অনলাইন প্রেসক্লাব এই মানববন্ধন’র আয়োজন করেন।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ভোলা জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ও দৈনিক সমকন্ঠ সম্পাদক আল-আমিন শাহরিয়ার। বক্তব্য রাখেন, রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক আব্দুস শহিদ তালুকদার,  মোহম্মদ আলী জিন্নাহ রাজিব, সাংবাদিক হারুন অর রশিদ, সাংবাদিক বিল্লাল হোসেন, বিপ্লব পাল প্রমুখ ।

এক বিবৃতিতে ভোলার গনমাধ্যম কর্মীরা বলেন, সাংবাদিক মাহমুদুল হক রাসেল খান একজন পেশাদার সংবাদ কর্মী । তার বিরুদ্ধে মিথ্যে ও ষড়যন্ত্রমুলুক মামলা এবং তাকে গ্রেপ্তার করে কারাগরে প্রেরনের ঘটনা অত্যন্ত দূঃখজনক । বক্তারা অনতিবিলম্বে সাংবাদিক রাসেল খান’র মুক্তির দাবী ও তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলুক মিথ্যে মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান।

এদিকে ভোলা প্রেসক্লাবের সম্মুখে আয়োজিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা শেষে পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসক বরাবর রাসেল খানের পরিবার এবং ভোলার চরের বাসিন্দাদের পক্ষ থেকে স্মারক লিপি প্রধান করা হয়েছে। উল্লেখ্য, গত ১৭ই জুলাই সাংবাদিক মাহমুদুল হক রাসেল খানকে পুলিশ ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার করে। ওইদিন ভোলার চরে অবস্থিত সাংবাদিক রাসেল খান’র মালিকানাধীন ডেইরি ফার্ম ও মাছ ঘাটে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। দুর্ধর্ষ ওই ডাকাতির ঘনটাকালে ডাকাত বাহিনী ডেইরী ফার্মের ১৫ টি গরু লুট করে নিয়ে যায়। ওই ঘটনায় রহস্যজনক কারনে পুলিশ সাংবাদিক রাসেল খান’কে কোনরকম সহযোগিতা না করেই উল্টো আটক করে কারাগারে পাঠান। ডাকাতির ঘটনায় ভোলার বিচারিক হাকিমের আদালতে রাসেল খানের ভাই শাহিন খান বাদী হয়ে মামলা করলে বিচারক অভিযোগটি এজাহার হিসেবে গ্রহন করতে ভোলা থানার ওসিকে নির্দেশ দেন কিন্তু নির্ধারিত সময়ে মামলাটি গ্রহন না করে গড়িমসি করেন পুলিশ। এরিমধ্যে ডাকাত বাহিনীর লোকেরা রাসেল খানের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা করলে পুলিশ ওই মামলায় রাসেল খানকে শ্যোন এরেস্ট দেখান। বিষয়টি নিয়ে ভোলার মিডিয়া পাড়ায় রিতিমত তোলপাড় শুরু হয়। বর্তমানে সাংবাদিক রাসেল খান কারাগারে বন্দী থাকায় তার পরিবারের সদস্যরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন বলে জানা গেছে।

0Shares

Comment here