খেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্ম

জনসমাগম করে নয়, কর্মহীন মানুষদের স্লীপ দিয়ে পরিবেশ ফাউন্ডেশনের খাদ্য সহায়তা।

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারী নির্দেশনা অনু্যায়ী জনসমাগম করে নয়, এবার কর্মহীন, অসহায়, দুস্থ খেটে খাওয়া মানুষদের স্লীপের মাধ্যমে তালিকা তৈরী করে পরিবেশ ফাউন্ডেশন তাদেরকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে।

আজ শনিবার রাত ৮টার কিছু পরে রামপুরা মেরাদিয়া মধ্য পাড়ায় বস্তিবাসী, কর্মহীন বেকার হত দরিদ্র এমন শতাধিক মানুষের মাঝে এসব খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়।

খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিল ৭ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি লবণ, ০.৫ কেজি সয়াবিন তেল ও একটি স্যান্ডলীনা সাবান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শেখ মোস্তাফিজুর রহমান, ভাইসচেয়ারম্যান লায়ন আব্দুর রহমান, নির্বাহী পরিচালক শাহবাজ জামান, ডেপুটি ডিরেক্টর মোস্তফা ফয়সাল এবং পরিচালক এডমিন মো: সামছুর রহমান।

অতি গোপনীয়তার সাথে দুস্থদের মাঝে এ সকল ত্রাণসামগ্রী বিতরন করা হয়েছে বলে জানান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শেখ মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন খাদ্য সহায়তার কথা শুনলে গরীব অসহায় দুস্থ মানুষগুলো যেভাবে ছুটে আসে তাতে বড় ধরনের একটি জটলার সৃষ্টি হয়। এতে করে করোনাভাইরাস সংক্রমণ হওয়ার আশংকা থেকে যায়। তাই এবার আমরা সকলে বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছি কোন রকম জনসমাগম নয়, দান হবে স্লীপের মাধ্যমে। ফাউন্ডেশনের ভাইসচেয়ারম্যান লায়ন আব্দুর রহমান জানান আমাদের সেচ্ছাসেবকগন বাড়ি বাড়ি গিয়ে দুস্থ, অসহায় কর্মহীন মানুষদের তালিকা তৈরী করছেন, পর্যায়ক্রমে আমরা সকলকে সাধ্য অনু্যায়ী খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাবো।

ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহবাজ জামান বলেন পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে আমরা কর্মহীন হয়ে পড়া হত-দরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসহায়তা এভাবেই অব্যহত রাখবো।

পরিচালক এডমিন সামছুর রহমান জানান সরকারি নির্দেশনা মেনে চলতে ও বিশেষ প্রয়োজনে বাড়ির বাহিরে বের হবার ক্ষেত্রে সামাজিক দুরত্ব (এক জন থেকে আরেক জনের দুরত্ব কমপক্ষে ৩ ফুট) বজায় রেখে চলাচল করতে পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি।

কর্মহীন এসকল মানবেতর জীবনযাপন করা মানুষগুলোর পাশে থেকে খাদ্য সহায়তা দিতে পারায় নিজেদেরকে সৌভাগ্যবান বলে মনে করছেন ফাউন্ডেশনের ডেপুটি ডিরেক্টর মোস্তফা ফয়সল। তিনি বলেন ফাউন্ডেশন মানুষের যেকোন ক্রাইসিসে পাশে থাকবে।

 

 

0Shares

Comment here