খেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্ম

ভোলায় সাংবাদিককে নির্যাতন করায় সন্ত্রাসী নাবিল হায়দার গ্রেফতার

 

মাসুদ রানা ভোলা জেলা দক্ষিণ থেকেঃ ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিনে ডব্লিউ নিউজের সম্পাদক সাগর চৌধুরীকে মোবাইল ছিনতাইয়ের মিথ্যা অপবাদ দিয়ে মারধরে ঘটনার মামলায় বোরহানউদ্দিনের সন্ত্রাসী নাবিল হায়দারকে গ্রেফতার করেছে ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, লালমোহন সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

আজ বুধবার (১ এপ্রিল) দুপুরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে রাত দুইটায় সাংবাদিক সাগর চৌধুরী অত্র থানায় নাবিলসহ পাঁচজনের নামে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বোরহানউদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক।

উল্লেখ্য, ডব্লিউ নিউজের সম্পাদক সাগর চৌধুরীর উপর বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন হায়দারের ছোট ছেলে নাবিল রাজমনি সিনেমা হলের সামনে মারধর করে।

ঘটনা সম্পর্কে সাংবাদিক সাগর চৌধুরী জানায়, তাকে নাবিল ফোন করে বাসা থেকে রাজমনি সিনেমার কাছে নিয়ে-ই মারধর শুরু করে। এমনকি নাবিল তার মোবাইল দিয়ে লাইভ করে বলে আমি নাকি তার মোবাইল নিয়েছি। নাবিল একই থানার লোক। তার বাবা ক্ষমতাসীন দলের পোস্টে আছে বলে তারা এলাকায় মানুষকে মানুষ মনে করে না। সাগর জানায়, ইউনিয়নের জেলেদের ১ মণ করে চাল দেওয়ার কথা, কিন্তু চাল দেওয়া হচ্ছে মাত্র ১৪-১৫ কেজি করে।
বিষয়টা আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানাই এবং চেয়ারম্যানকে বলি কেন চাল কম দিচ্ছেন? এজন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বসির গাজি এবিষয়ে চেয়ারম্যানকে আমার বিরুদ্ধে লেলিয়ে দেন । যে কারণে বোরহানউদ্দিন বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের (ভোলা) চেয়ারম্যান জসিমউদ্দিন হায়দারের ছেলে নাবিল হায়দার আজকে আমাকে ডেকে নেয় দেখা করার জন্য। এরপর ভিপি নুরের হত্যার হুমকির ভিডিও দেখিয়ে বলে, আমি ভিপি নুরকে গুনিনা, আর তুমি তো কোথাকার সাংবাদিক। একথা বলতে বলতে আমাকে প্রচন্ড রকম মারধর করে এবং মোবাইল ছিনতাইকারী হিসেবে অপবাদ দেয়।
উল্লেখ্য, নাবিল হায়দার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে, কিছুদিন আগে সে ডাকসু ভিপি নুরকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি ও তার সহযোদ্ধা শাকিলের উপর অতর্কিত হামলা করে।

0Shares

Comment here