খেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্ম

মুন্সিগঞ্জে বিদেশ ফেরত ৮ হাজার ৯শ, হোম কোয়ারেন্টাইনে ৩৩৭ জন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ  মুন্সীগঞ্জ জেলার ছয়টি উপজেলায় ২৪ ঘন্টায় নতুন করে যুক্ত হয়েছে ৬৬ জন। নতুন ৬৬ জন নিয়ে এ পর্যন্ত ৩৩৭ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন। তাদের নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত বাড়িতে অবস্থান করার জন্য পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। শনিবার (২১ মার্চ) বিকাল ১২টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন আবুল কালাম আজাদ। দুর্ভাগ্য হলোও সত্য মুন্সীগঞ্জে সবচেয়ে বেশী প্রবাসী ফেরত। ৮ হাজার ৯শ জনের মধ্যে মাত্র ৩৩৭ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে বাকীরা গেল কোথায়? নতুন করে হোম কোয়ারেন্টাইনে যুক্ত আছেন সদরে ০৬ জন, গজারিয়াতে ১১ জন, টংগীবাড়িতে ২৫, সিরাজদিখানে ১৮ জন, শ্রীনগরে ০১, লৌহজং উপজেলায় ০৫ জন নতুন সংযুক্ত হয়েছেন।

২২ জনের ১৪ দিন উত্তীর্ণ হওয়ায় হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্ত হওয়ার পরেও এ পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকাদের মধ্যে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলায় ৪৬ জন, গজারিয়াতে ৩০ জন, টংগিবাড়ীতে ১০২জন, সিরাজদিখানে ১০৩ জন, শ্রীনগরে ২৯ জন ও লৌহজং উপজেলায় ২৭ জন সর্বমোট ৩৩৭জন।

মুন্সীগঞ্জ সিভিল সার্জন ডাঃ আবুল কালাম আজাদ জানান, শনিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত মুন্সীগঞ্জ জেলার ছয়টি উপজেলায় ৩৩৭জন হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন। প্রতিদিন স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসকরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। ৩৩৭ জনকে বাইরে ঘোরাফেরা না করে বাসায় অবস্থান করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

প্রতিদিন হোম কোয়ারেন্টাইনে নতুন যোগ হচ্ছে আবার ১৪ দিন শেষে তালিকা থেকে বাদ পড়ছেন অনেকে। চলতি মাসের ১ মার্চ থেকে যারা হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন তারা তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন৷

মুন্সীগঞ্জ স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে শুধু বিদেশ ফেরতদের কোয়ারেন্টাইনের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত এর সংখ্যা ছিল ২৯১ জন।

শুক্রবার রাতে মুন্সীগঞ্জ জেলার অভ্যন্তরে করোনা ভাইরাস (কোভিড ১৯) এর প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় জেলার সকল কার্যক্রমের সার্বিক সমন্বয় এবং তদারককারী অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দীপক কুমার রায় জানান, ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত সর্বমোট ৮ হাজার ৯০০ জন প্রাবাসী মুন্সীগঞ্জে প্রবেশ করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

0Shares

Comment here