খেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্ম

গনপরিবহনে যাত্রীর চাপ কম, স্বল্প দূরত্বে হেঁটে যাচ্ছেন রাজধানীবাসী

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। সাথে সাথে সচেতনতাও বাড়ছে সাধারণ মানুষের মাঝে। কর্মদিবসে রাজধানীর সড়কগুলোতে সাধারণত যে ধরণের চিত্র দেখে রাজধানীবাসী অভ্যস্ত সে ধরণের চিরচেনা দৃশ্য চোখে পড়ছে না। কমে গেছে যানবাহন ও মানুষের ভীড়। গণপরিবহনগুলোতেও এখন নেই আগের মতো ঠাসাঠাসি অবস্থা। রাজধানীর বেশিরভাগ মানুষ এখন স্বল্প দূরত্বে যানবাহন ব্যবহার না করেই হেঁটে যাচ্ছেন। এড়িয়ে চলছেন জনসমাগম। কেউ কারো সাথে আড্ডায় লিপ্ত হচ্ছেন না। অফিস শেষ করেই রওয়ানা হচ্ছেন বাসার উদ্দেশ্যে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে অফিস শেষে মতিঝিল এলাকায় দেখা যায় কয়েকটি বাস দাঁড়িয়ে আছে যাত্রীর অপেক্ষায়। পাশ দিয়ে মানুষ হেঁটে যাচ্ছে কিন্তু বাসে উঠার ব্যাপারে কারো সাড়া নেই। কর্মস্থল থেকে যাত্রাবাড়ীর উদ্দেশ্যে হেঁটে রওয়ানা হওয়া ব্যাংক কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে গণপরিবহন এড়িয়ে চলা ভালো। মতিঝিল থেকে যাত্রাবাড়ী পর্যন্ত হেঁটে যেতে ২৫-৩০ মিনিট লাগে। এজন্য কয়েকদিন ধরে হেঁটে যাওয়া-আসা করছি।

কেবল দূরের গন্তব্যের যাত্রীরা যাদের পক্ষে হেঁটে কিংবা বেশি টাকা খরচ করে বিকল্প পরিবহনে যাওয়া সম্ভব নয়, তারাই গণপরিবহনে চড়ছেন। কারওয়ান বাজারে বিভিন্ন অফিসে কর্মরত কয়েকজন জানান, মহাখালী, ফার্মগেট, খামারবাড়ি, শাহবাগ, পুরান ঢাকাসহ আশপাশ এলাকায় বসবাসকারীরা যার যার গন্তব্যে হেঁটেই যাচ্ছেন। নিজাম নামে শাহবাগের এক ব্যবসায়ী জানান, শাহবাগে তার ব্যবসা। বাসা রাজাবাজারে। আগে বাসে ফার্মগেট নেমে হেঁটে বাসায় যেতাম। এখন শাহবাগ থেকে হেঁটেই বাসায় যাচ্ছি।

0Shares

Comment here