খেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্ম

বাস ভাড়া নিয়ে বিতর্কে দুই ভাইকে ধাক্কা, চাকায় পিষ্ট হয়ে একজনের মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় বৃহস্পতিবার ভাড়া নিয়ে বিতর্কের জের ধরে দুই ভাইকে ধাক্কা দিয়ে বাস থেকে ফেলে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক বাসচালকের সহকারীর বিরুদ্ধে।

এতে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় এক ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। তবে বাসটি চিহ্নিত করতে পারেনি আহত শরিফ মিয়া।

নিহত যুবকের নাম আশিক মিয়া (২৫)। আহত হয়েছেন তার ভাই শরিফ মিয়া (২০)। তারা দুজনই ইটভাটার শ্রমিক। তারা সরাইলের সদর ইউনিয়নের গুনারা গ্রামের ফরিদ মিয়ার ছেলে।

আহত শরিফ মিয়া বলেন, তারা দুই ভাই চট্টগ্রাম থেকে হবিগঞ্জে বাহুবলগামী একটি বাসের যাত্রী ছিলেন। তারা কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার মিরপুর থেকে বৃহস্পতিবার ভোরে বাসটিতে ওঠেন। তাদের সরাইল বিশ্বরোড মোড়ে নামার কথা ছিল।

সকাল ৭টার দিকে বাসটি বিশ্বরোড মোড়ে পৌঁছায়। এর আগে ভাড়া নিয়ে ওই বাসের চালকের সহযোগীর সঙ্গে তাদের সামান্য তর্কের ঘটনা ঘটে। এতে ক্ষুব্ধ হন বাসের চালক ও তার সহযোগী।

শরিফের অভিযোগ, এই কারণে বিশ্বরোড মোড়ে তাদের না নামিয়ে এক কিলোমিটার দূরে কুট্টাপাড়া মোড়ে জোর করে ধাক্কা দিয়ে দুই ভাইকে বাস থেকে ফেলে দেয় চালকের সহকারী। এতে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে আশিক মিয়া গুরুতর আহত হন। আশিককে প্রথমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে ঢাকায় নেয়ার পথে বৃহস্পতিবার বিকালে তার মৃত্যু হয়।

শরিফ মিয়া বলেন, তারা যে বাসে ছিলেন, তাতে ২০ থেকে ২৫ জন যাত্রী ছিল। তবে সংশ্লিষ্ট বাসের নাম বা নম্বর তিনি জানেন না।

হাটিহাতা হাইওয়ে থানার ওসি মো. মাইনুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থল সরাইল থানা এলাকায়, তাই বিষয়টি সরাইল থানা পুলিশ দেখবে।

এই ব্যাপারে সরাইল থানার ওসি শাহাদাত হোসেন টিটু জানান বলেন, বাসটি পালিয়ে গেছে। এটিকে চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। শুক্রবার লাশের ময়নাতদন্ত করা হবে। অভিযোগ পেলে মামলা হবে।

0Shares

Comment here