খেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্ম

টেকনাফ কলেজ পাড়ায় নিজ মেয়েকে অনৈতিক কাজে বাধ্য করায় মায়ের নামে মেয়ের থানায় অভিযোগ

রহমত উল্লাহ টেকনাফ প্রতিনিধিঃ টেকনাফ পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড কলেজ পাড়া এলাকার রাবিয়া বশরির নিজ বাড়িতে জমজমাট পতিতা ও ইয়াবা ব্যবসায়িদের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে টেকনাফ পৌরসভার কয়েকটি হোটেল থেকে থানা পুলিশের অভিযানে বেশ কিছু পতিতাদের আটক করা হলেও পতিতাদের নানীখ্যাত রাবিয়া বশরি দিন দিন বেপরোয়া হয়ে তার ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে এলাকার যুব সমাজ ও ছাত্র সমাজ ধ্বংসের দিকে চলে গেলেও তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে কেউ সাহস পাচ্ছে না।

 

সূত্রজানায় রাবিয়া বশরি টেকনাফ পৌরসভার প্রভাবশালীর স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস করলেও নিজ বাড়িতে গড়ে তোলেন মিনি পতিতালয়। দীর্ঘদিন ধরে সে টেকনাফ পৌরসভার বিভিন্ন হোটেল ও কক্সবাজারের বেশ কয়েকটি কটেজ ও ফ্লাটে নিয়মিত মেয়েেদের সরবরাহ করে থাকে।

এসব কটেজ ও ফ্লাটে অবৈধ ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করতে তার রয়েছে একটি সিন্ডিকেট। টেকনাফসহ কক্সবাজারের বিভিন্ন জায়গায় নানী হিসাবেও তার রয়েছে ব্যাপক পরিচিতি । অপরদিকে তার নামে  মাদকদ্রব্য বিক্রি করারও অভিযোগ রয়েছে।

 

তার এই অপকর্মের বিরুদ্ধে নিজের মেয়ে আইডিয়াল পাবলিক স্কুলের সপ্তম শ্রেনীতে পড়ুয়া ছাত্রী রোকসানা আকতার প্রতিবাদ করলে তাকেও শারিরীকভাবে নির্যাতন সয্য করতে হয়। রাবিয়া বশরী বলেন যদি এ নিয়ে বেসি বাড়াবাড়ি করিস তাহলে তাকেও তার মায়ের এসকল অনৈতিক কাজের সহযোগী হিসেবে তিনি পুলিশকে জানিয়ে দিবেন বলে সাফ জানিয়েদেন।

এ বিষয়ে রোকসানা আকতার গতকাল বুধবার তার মায়ের নামে টেকনাফ মডেল থানায় হাজির হয়ে মায়ের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দাখিল করেন যা কিনা বর্তমানে টক অফ দ্য টাউনে পরিনত হয়েছে।

টেকনাফ পৌরসভা কলেজপাড়া এলাকার রাবিয়া বশরির দেহ ব্যবসাসহ মাদকের আগ্রাসন বন্ধে প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন সচেতন মহল।

এ ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) অপারেশন রাকিবুল ইসলাম জানান, টেকনাফ পৌরসভার কয়েকটি হোটেলে অভিযান চালিয়ে অবৈধ কাজে লিপ্ত থাকার অপরাদে প্রায় অর্ধশতাদিকে যৌনকর্মীকে  গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই বিষয়ে কাউকে কোন ছাড় দেওয়া হবেনা। নিয়মিত অভিযান চলছে চলবে। রাবিয়া বশরি ওরফে (নানীর) বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, প্রশাসনের বিভিন্ন ইউনিট মাদক, সন্ত্রাস, মদ, জুয়া এবং পতিতার ব্যাপারে জিরোটলারেন্স গ্রহনে চ্যালেন্স নিয়ে প্রত্যেক এলাকায় কাজ করছে।শীঘ্রই অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে আইনআনুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

0Shares

Comment here