খেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্মরকমারিরাজনীতিরুপসী বাংলা

রুপগঞ্জ উপজেলার বরপায় প্রিমিয়ার স্টীল রি-রোলিং মিলের কালো ধোঁয়া গিলে খাচ্ছে এলাকাবাসীকে।

 

 

এসকে জামান: নারায়ণগঞ্জ জেলার রুপগঞ্জ উপজলার বরপায় প্রিমিয়ার স্টীল রি-রোলিং মিলের কালো ধোঁয়ায় গিলে খাচ্ছে এলাকাবাসীকে। ফলে চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে পরিবেশ।

এই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মারাত্মক কালো ধোঁয়া ছড়ানোর অভিযোগ থাকলেও বন্ধ করা যাচ্ছে না চরম এই পরিবেশ দূষণ। বিষাক্ত কালো ধোঁয়ার কারণে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে রয়েছে এলাকাবাসী। এ অবস্থায় স্থানীয় জনমনে চরম ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দীর্ঘদিন ধরে এ ধরনের পরিবেশে থাকলে মানুষের শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্যান্সার হওয়ার আশঙ্কা বেশি থাকে।একই সাথে ফুসফুস, কিডনি জটিলতা, হৃদরোগ, শ্বাসযন্ত্রের প্রদাহ, নিউমোনিয়া, ব্রঙ্কাইটিস রোগের প্রচন্ড ঝুঁকিও অনেক বৃদ্ধি পায়। দূষণ এলাকার স্থানীয় লোকজন একজিমা, হাঁপানি, আমাশয় এবং ম্যালেরিয়া রোগে ভুগছেন।

 

সরেজমিন দেখা গেছে নারায়ণগঞ্জ জেলার রুপগঞ্জ উপজেলার বরপায় অবস্থিত প্রিমিয়ার স্টীল রি-রোলিং মিল থেকে প্রতিদিন সকাল ১১ টার দিকে কালো ধোঁয়ায় অন্ধকার হয়ে যায় বরপা শিল্প এলাকা। রাতের আধারে কালো ধোঁয়ার মাত্রা আরো বেশি। তখন কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় পুরো এলাকা। বিভিন্ন কারখানার শ্রমিকরা নাক চেপে চলাচল করছেন। আশপাশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা এই পথ দিয়ে বাসায় ফিরছে। তাদের অনেকেই মুখে মাক্স ব্যাবহার করে খেলাধুলা করতে দেখা যায়। এভাবে দিনের পর দিন পরিবেশের ক্ষতি করে উৎপাদন করছে কোটি কোটি টাকার রড।

 

পরিবেশ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শেখ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, যারা পরিবেশ দূষণ করবে বা পরিবেশ দূষণের সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে পরিবেশ আইনে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া উচিৎ।  তিনি দূষণকারীদের বিরুদ্ধে পরিবেশ অধিদপ্তরে অভিযোগ প্রদানের জন্য এলাকাবাসীর প্রতি অহবান জানান।

 

এলাকাবাসী ও কারখানার শ্রমিকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সকাল ১১টার পর থেকে কারখানার ধোঁয়ায় পুরো এলাকা অন্ধকার হয়ে যায়। বিকাল হলে এসব কারখানার ধোঁয়া আরো ব্যাপক আকার ধারণ করে। আর রাতে ধারণ করে মারাত্মক আকার। মনে হয় শীতকালের কুয়াশায় আচ্ছন্ন নগরী। ধোঁয়ার কারণে চোখ জ্বালাপোড়া করে। আর নাক দিয়ে পানি পড়ে। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার মত কেউ নেই।

 

চিকিৎসকদের মতে, কালো ধোঁয়ায় থাকা বস্তুকণা ও সালফার ডাই-অক্সাইডের প্রভাবে ফুসফুস, কিডনি জটিলতা ও হৃদরোগের প্রচন্ড ঝুঁকি রয়েছে।

এছাড়া নাইট্রোজেন ডাই-অক্সাইড ও সিসার কারণে শ্বাসযন্ত্রের প্রদাহ, নিউমোনিয়া, ব্রঙ্কাইটিসের ঝুঁকি দেখা দেয় এবং ব্যাহত হয় শিশুদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশ। এসব বিষাক্ত ধোঁয়া মানুষের শ্বাস-প্রশ্বাসের সাথে দেহের ভেতর ঢুকে পড়ছে। এভাবে কালো ধোঁয়ার সাথে বস্তুকণা, সালফার ডাই-অক্সাইড ও নাইট্রোজেন ডাই-অক্সাইড, সিসাসহ অন্যান্য ক্ষতিকর উপাদান বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে। এভাবে নারায়ণগঞ্জের বাতাস দ্রুত দূষিত হচ্ছে। ফলে কুতুবপুরের নন্দলালপুর, নয়ামাটি, দেলপাড়া, পাগলা, আলীগঞ্জ, পিলকুনীর মতো শিল্প এলাকার বাতাস সব সময় বেশি দূষিত থাকে। এর জন্য দায়ি কলকারখানার কালো ধোঁয়া।

 

এ বিষয়ে একাধিক শিক্ষাবিদ বলেন, এলাকায় যেসব কল-কারখানা থেকে ধোঁয়া বের হয়, তা অবশ্যই স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। যে মাত্রায় ধোঁয়া নির্গত হয়, তা কমানোর জন্য তেমন একটা ব্যবস্থা আমাদের নেই। এসব জায়গাগুলোকে বলা হয় ‘হিট হট স্পট’। এসব জায়গা চিহ্নিত করার জন্য আমরা একটা গবেষণা কাজ করেছি। তার মধ্যে কুতুবপুরের কিছু এলাকা অন্যতম। কালো ধোঁয়ার কারণে মানবদেহে স্বাস্থ্যঝুঁকির বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এমন পরিবেশে থাকলে শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্যান্সার হওয়ার আশঙ্কা বেশি থাকে।

 

বাংলাদেশ পরিবেশ অধিদপ্তরে দৃষ্টি আকর্ষন করে এলাকাবাসী বলেন, আমাদের এলাকার সবাইকে প্রিমিয়ার স্টীল রি-রোলিং মিলের কালো ধোঁয়া থেকে বাচাতে অতি শীঘ্রই ব্যবস্থা গ্রহন করতে আকুল আবেদন জানিয়েছেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।

 

(প্রিমিয়ার স্টীল রি-রোলিং মিল সহ পরিবেশ দূষণ কারী অন্যান্য সকল প্রতিষ্ঠান এর আরো প্রতিবেদন দেখতে আমাদের সাথেই থাকুন)

0Shares

Comment here