খেলার মাঠেজাতীয়ধর্মকর্ম

ইসলামের দাওয়াত সঠিকভাবে পৌঁছাতে আলেমদের প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান।

ডেস্করিপোর্টঃ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল আলেমদের প্রতি আহ্বান করে বলেন, মসজিদে জুমার খুৎবা এবং ধর্মীয় সভা সমাবেশে ইসলামের দাওয়াত সঠিকভাবে পৌঁছাতে হবে। ইসলাম যা নিষেধ করেছে এবং যা আদেশ করেছে এ ব্যাপারে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ইসলাহুল মুসলিমিন পরিষদ বাংলাদেশ আয়োজিত ইছাপশর-বেলংকা গ্রামে জামিয়াতুল ইসলাহ আল মাদানিয়া ময়দানে তিনদিন ব্যাপী ইসলাহী ইজতেমার আখেরী মোনাজাতে অংশ নিয়ে এ আহ্বান জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘ইসলাম হলো শান্তির ধর্ম, ইসলাম কখনও জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না’ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে বাংলাদেশ থেকে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক নির্মূলে জিরোটলারেন্স ঘোষণা করেছেন।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলেয়ে বাংলাদেশ সামনে অগ্রসর হচ্ছে। সরকার কওমি মাদরাসাকে স্বীকৃতি দিয়েছে। আলেম উলামাদের উন্নয়নের জন্য আরো কিছু করার প্রয়োজন হলে আপনারা দাবি জানাবেন। সরকার আপনাদের পাশে আছে। দেশকে এগিয়ে নিতে আপনাদেরও সার্বিক সহযোগিতা করতে হবে।

মোনাজাত পরিচালনা করেন সায়্যিদ আস’আদ মাদানীর (রহ.) অন্যতম খলিফা, আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান ও কিশোরগঞ্জ ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ্ মাঠের গ্র্যান্ড ইমাম পীরে কামেল আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসঊদ (দা.বা.)।

এছাড়াও ইসলাহী ইজতেমার আখেরী মোনাজাতে ময়মনসিংহ-৯ (নান্দাইল) আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন খান তুহিন, কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট জিল্লুর রহমান, জেলা প্রশাসক সারোয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ (বিপিএম বার), উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জহিরুল ইসলাম ভূঞা শাহীন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. তারেক মাহমুদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. আজিজুল হক ভূঞা মোতাহার, সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন লাকী, তাড়াইল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মুজিবুর রহমান, ওসি তদন্ত মিজানুর রহমান, আয়োজক কমিটির সন্বয়ক মাওলানা সাঈদ নিজামীসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে লক্ষাধিক মুসুল্লী অংশগ্রহণ করেন।

 

0Shares

Comment here