অর্থনীতিজাতীয়প্রযুক্তি

কুমিল্লায় সেনাবাহিনীর জিপ চাপায় নিহত-২। আহত-২।

নিজস্ব রিপোর্টার : কুমিল্লার চান্দিনা ও দেবীদ্বার উপজেলার সীমান্তবর্তী নূরমানিকচর এলাকায় সেনা বাহিনীর গাড়ি চাপায় চাচা ভাতিজির মৃত্যু ঘটেছে।

এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ২ জন।

মঙ্গলবার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুর আনুমানিক সোয়া ১টায় চান্দিনা ও দেবীদ্বার উপজেলার সীমান্তবর্তী ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নূরমানিকচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ফটকের সামনে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।
নিহতরা হলেন মিন্টু বিশ্বাস (১২)  সুনামগঞ্জ জেলার দোহার উপজেলার আজমপুর গ্রামের গুরুধন বিশ্বাসের ছেলে ও তার ভাতিজি স্বপন বিশ্বাস এর মেয়ে হ্যাপী বিশ্বাস (১০ মাস)।
তারা নূরীতলা আশা জুট মিলে শ্রমিকের কাজ করার সুবাদে স্বপরিবারে নূরমানিকচর এলাকায় ভাড়ায় বসবাস করতো।
আহতরা হলেন মঞ্জু মিয়া (৫৫) কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার নূরমানিকচর গ্রামের মৃত কালা মিয়ার ছেলে ও গিয়াস উদ্দিন (১০) একই গ্রামের রমিজ উদ্দিনের ছেলে ।
প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা যায় , সেনাবাহিনীর একটি জিপ কুমিল্লার দিকে যাওয়ার সময় নূরমানিকচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে চাকা পাংচার হয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্কুলের সীমানা প্রাচীরে ধাক্কা লাগে। এসময় ভাতিজিকে কোলে নিয়ে চাচা মিন্টু বিশ্বাস ও মঞ্জু মিয়া, গিয়াস উদ্দিন স্কুলের গেইটে দাঁড়িয়ে থাকাবস্থায় গাড়ির ধাক্কায় চাচা ভাতিজি ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এসময় গুরুতর আহত হয় মনু মিয়া ও গিয়াস উদ্দিন। পরে আহতদের উদ্ধার করে কুমিল্লা ময়নামতি সেনানিবাস সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে হাইওয়ে পুলিশ ইলিয়টগঞ্জ ফাঁড়ির ইন-চার্জ (ইন্সপেক্টর) মনিরুল ইসলাম জানান, সেনাবাহিনীর শীতকালীন টহলরত জিপটি সামনের চাকা পাংচার হওয়ার সাথে সাথে কানেক্টিং রড খুলে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে কুমিল্লা ময়নামতি সেনানিবাস সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে।
এ ঘটনার পরপরই সেনাবাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা অঞ্চলের অতিরিক্ত সহকারি পুলিশ সুপার রহমত উল্লাহ অপু ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন। এসময় স্থানীয় সুলতানপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম এর উপস্থিতিতে সেনাবাহিনীর তরফ থেকে হতাহতদের পরিবারের প্রতি মানবিক সহায়তা করা হবে বলে জানানো হয় ।
0Shares

Comment here