অর্থনীতিজাতীয়প্রযুক্তি

কুমিল্লা বুড়িচংয়ে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৬ হাজার মিটার অবৈধ গ্যাস লাইন বিচ্ছিন্ন।

কুমিল্লা প্রতিনিধি :কুমিল্লার বুড়িচংয়ের ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কোরপাই সাদাত জুট মেইল এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত ও কুমিল্লা বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড যৌথ অভিযান চালিয়ে ৬ হাজার মিটার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন করেছেন।

সোমবার (৯ ডিসেম্বর) উপজেলার ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কোরপাই সাদাত জুট মেইল এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয় বলে জানা যায়।
অভিযানে পরিচালনা করেন বুড়িচং উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাহমিদা আকতার।

এছাড়াও এসময় উপস্থিত ছিলেন বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিঃ এর ম্যানেজার (ভিজিল্যান্স) মোঃ আবু জাফর, ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিসেস ম্যানেজার কিশোর দত্ত, ব্যবস্থাপক জসিম উদ্দিন আহাম্মদ, র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ সদস্যবৃন্দ ও বুড়িচং থানা পুলিশ।

ঘটনা সুত্রে জানা যায়, উপজেলার ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কোরপাই এলাকার সাদাত জুট মিল সংলগ্ন একটি ডমেস্টিক লাইনের মেইন পাইপ লাইন থেকে অবৈধ উপায়ে ছিদ্র করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নিচে দিয়ে অবৈধ সংযোগটি দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার করে আসছে আশেপাশের কয়েকটি গ্রামের মানুষ।

গত ৬ মাস পূর্বে একইভাবে এই অবৈধ সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করা হয়। সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার পর গ্যাস চোর সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যাবস্থা গ্রহণ না করায় গ্যাস বিচ্ছিন্ন করার দুই দিন পরই পুনরায় গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে অবৈধ পন্থা অবলম্বন করে একই ভাবে আবারও অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে যায় গ্যাস চোরের একটি সিন্ডিকেট ।

বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসী ও ভূক্তভোগী কয়েকজন গ্রাহক অভিযোগ করে বলেন কয়েক মাস পরপর টাকা নিয়ে যারা সংযোগ দেয় তারাই আবার অবৈধ বলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। আমরা অবৈধ গ্যাস ব্যবহার করতে চাই না। কিছু অসাধু ব্যক্তি আমাদেরকে বৈধ ভাবে সংযোগ দেয়া হবে বলে আমাদের কাছ থেকে ৪০ থেকে ৫০ হাজার করে টাকা নিয়ে সংযোগ দেয়া হয়েছে। আমাদেরকে বৈধ উপায়ে গ্যাস দেয়া হোক। আর যারা মানুষকে বৈধ ভাবে সংযোগের কথা অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ দিয়ে মানুষকে প্রতারিত করছে তাদেরকে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান।

বিষয়টি নিয়ে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোং লিঃ এর ম্যানেজার (ভিজিল্যান্স) আবু জাফর বলেন, এর আগেও এই সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। সংযোগটি বিচ্ছিন্নের কয়েকদিন পর আবারো নতুন করে সংযোগ চালু করে কতিপয় কিছু অসাধু লোক। বাখারাবাদের কেউ এসবের সাথে জড়িত থাকলে লিখিত ভাবে কেউ অভিযোগ করলে তার বিরুদ্ধে সত্যতা যাচাই করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

0Shares

Comment here