অর্থনীতিজাতীয়প্রযুক্তি

খুলনায় আওয়ামী লীগের সম্মেলন ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি।

খুলনা থেকে বনিব্রত মজুমদারঃ  খুলনা এখন ব্যানার আর ফেস্টুনের নগরী। সারা শহরে সাজ সাজ রব। এই প্রথম মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের একই দিন সম্মেলন হওয়ায় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা পরিলক্ষীত হচ্ছে। আগামীকাল ১০ ডিসেম্বর নগরীতে আওয়ামী লীগের সম্মেলন ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন।
দলীয় সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। সম্মানিত অতিথি থাকবেন বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য বঙ্গবন্ধু ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি।
এদিকে খুলনার বিভিন্ন সড়ক দ্বীপ, মোড় ও স্থাপনা ঢেকে গেছে ব্যানার পোস্টারে। সড়কের নানা স্থানে নির্মাণ করা হয়েছে একাধিক তোরণ। অর্ধলক্ষাধিক মানুষের সমাগম উপলক্ষে সার্কিট হাউজ মাঠে নির্মিত হচ্ছে বিশালাকার প্যান্ডেল। দলীয় প্রতীক নৌকার আদলে নির্মাণ করা হচ্ছে সভা মঞ্চ।
মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন প্রায় দীর্ঘ পাঁচ বছর পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা। সম্মেলনকে স্মরণীয় করে রাখতে সবধরনের প্রস্তুতি চলছে। সভাস্থল ও এর বাইরেও একধিক স্থানে প্রজেক্টরের মাধ্যমে সরাসরি স¤প্রচারের মাধ্যমে দেখার ব্যবস্থা থাকবে। উদ্বোধন ও কাউন্সিল এই দু’টি ধাপে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হারুনুর রশীদ জানান, সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির ৬৭ জন ও নয়টি উপজেলা থেকে ১৫৭ জন কাউন্সিলর এবং ৪ হাজার ডেলিগেটস অংশ নিবেন। মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির ৬৬ জন ও ৩৬টি ওয়ার্ড থেকে ১২ জন করে ৪৩২, ৫টি থানা থেকে ৫ জন করে ২৫ জন কাউন্সিলর ছাড়াও ৩৬ সাংগঠনিক ওয়ার্ড থেকে ২শ জন করে ৭ হাজার ২শ জন ডেলিগেটস সম্মেলনে যোগদান করবেন। ৪২০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৩৪৫ ফুট প্রস্থের নির্মিত প্যান্ডেলে ৩০ হাজার মানুষের আসন ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
সম্মেলন উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলের সদস্য পীযুষ কান্তি ভট্টচার্য্য, প্রধান বক্তা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, বিশেষ অতিথি থাকবেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম হানিফ ও প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান, বিশেষ বক্তা কেন্দ্রীয় সদস্য শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, কেন্দ্রীয় সদস্য সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহ উদ্দিন জুয়েল, খুলনার বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, শ্রম সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, কেন্দ্রীয় সদস্য এস এম কামাল হোসেন, অ্যাড. আমিরুল আলম মিলন, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তৃতা করবেন মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ তালুকদার আব্দুল খালেক। এছাড়াও বক্তৃতা করবেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও বিজ্ঞান প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ডা: আ ফ ম রুহুল হক এমপি, জাতীয় সংসদের হুইপ পঞ্চানন বিশ্বাস এমপি, সাবেক মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বাবু এমপি, খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুস সালাম মূর্শেদী, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য গেøারিয়া ঝর্ণা সরকার।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ মিজানুর রহমান মিজান ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সুজিত অধিকারী।
নগরী আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, এবার সম্মেলনে প্রায় অর্ধলক্ষাধিক মানুষের সমাগম ঘটবে। জেলা ও নগরের সম্মেলন একত্রে হওয়া বড় আয়োজন। সম্মেলনের প্রস্তুতি হিসেবে মঞ্চ তৈরি ও প্যান্ডেল নির্মাণের কাজ চলছে। প্যান্ডেলের ভেতরে ৩০ হাজার চেয়ারে নেতাকর্মীদের বসার ব্যবস্থা থাকবে।
জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল বলেন, সম্মেলন উপলক্ষে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। খুলনার সকল প্রবেশদ্বারে প্যানা পোস্টার ও তোরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও উপজেলা থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে মাইকিং, লিফলেট ও গাড়িতে ভ্রাম্যমাণ প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

0Shares

Comment here