খেলার মাঠেজাতীয়লাইফস্টাইল

ভোলার বোরহানউদ্দিনে জেএসসি পরীক্ষার্থীকে মিথ্যা মামলায় ফাসালো আপন চাচা চাচী।

বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধিঃ ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ৬ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ সেলিম এর ছেলে জেএসসি পরীক্ষার্থী মোঃ হৃদয় (১৩)কে তারই আপন চাচী পারিবারিক কলহের জের ধরে তার ৬ বছরের মেয়েকে দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ এনে থানায় একটি মিথ্যা মামলা দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হৃদয়ের পিতামাতা তার বড় ছেলে সুমনকে নিয়ে ঢাকায় থাকার সুযোগে বাড়িতে হৃদয়কে একা পেয়ে তার চাচা চাচী এই অপকর্মেটি করেছে বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী।

সরেজমিনে জানাযায় ডাওরী হাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্র জেএসসি পরীক্ষার্থী হৃদয়ের আপন বড় ভাই সুমন মোটরসাইকেল এক্সিডেন্ট করলে তার চিকিৎসা করাতে তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সে সময় হৃদয়কে বাড়িতে একা রেখে তার পিতামাতা সুমনের সঙ্গে ঢাকায় অবস্থানকরলে  হৃদয়ের চাচা শহীদ ও চাচী জেসমিন মিলে তার ৬ বছরের মেয়েকে জড়িয়ে এই মিথ্যা মামলা করে।

পারিবারিক ভাবে হৃদয়ের পিতার সাাথে তার ছোট চাচা মোঃ শহিদের দীর্ঘদিন ধরে জায়গাজমি নিয়ে বিরোধ চলছিলো। আর এরই জের ধরে শহিদ ও তার স্ত্রী বিবি আরজু মিলে পরিকল্পনা করে হৃদয়ের বাবার প্রতি প্রতিশোধ নিতে ধর্ষণের অভিযোগ এনে এই মিথ্যা মামলা দিয়েছে বলে জানান হৃদয়ের পিতা সেলিম।

ছেলের এমন খবর শুনে পিতামাতার মাথায় যেন আকাশ ভেঙে পড়ে।

এ প্রতিবেদককে হৃদয়ের পিতামাতা কান্না জড়ত কন্ঠে বলেন, আমাদের উপর প্রতিশোধ নিতে এমন পথ বেছে নেবে ভাবতে পারিনি। আমার ছেলে নির্দোষ। হৃদয় চলতি বছরের জেএসসি পরীক্ষার্থী ছিলো মামলার করানে সে(দুই) বিষয়ে পরীক্ষা দিতে পারেনি। আমি আমার ছেলের এ ক্ষতি কি দিয়ে পুরন করব একথা বলে হৃদয়ের বাবা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এ বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তার পরিবার।

0Shares

Comment here