খেলার মাঠেজাতীয়রাজনীতিরুপসী বাংলা

শাহজাদপুরে ইউপি সদস্যের অবৈধ বালু উত্তোলন, হুমকিতে যমুনার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধ।

 

জাকারিয়া মাহমুদ, (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে যমুনা নদীর তীরবর্তী গোপালপুর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পাশ থেকে অবৈধ ড্রেজারের মাধ্যমে বালু উত্তোলন করছে কৈজুরি ইউনিয়নের ইউপি সদস্য প্রভাবশালী বালু ব্যাবসায়ী মোঃ চুন্নু। বাঁধের গাঁ ঘেঁষে গভীর গর্ত করে বালু উত্তোলনের ফলে হুমকির মুখে পড়ছে কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত গোপালপুর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ।

গোপালপুর মোড় থেকে হাঁট পাচিল পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার এই বাঁধটি ইতিপূর্বে কয়েকবার ভেঙ্গে গেছে। এ বছরের জানুয়ারি মাসে পুনরায় কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মাণ করা হয় বাধটি। প্রতিবছর বাঁধটি ভেঙে যাওয়ার ফলে প্লাবিত হয় শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরী, জালালপুর, বেলতৈল ইউনিয়নের প্রায় ২০টি গ্রাম ও হাজার হাজার মানুষ ও বিনষ্ট হয় গোঁ খাদ্য । নষ্ট হয়ে যায় ফসলি জমি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং বেশ কিছু তাঁত কারখানা। বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে গোপালপুরের সাথে শাহজাদপুর শহরের যাতায়াত ব্যাবস্থা।

এ অবস্থায় এমন গুরুত্বপূর্ণ বাধের একেবারে গোড়া থেকে অর্থলোলুপ বালুদস্যুদের অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের কারনে বাঁধটি আবারো ভেঙে পড়তে পারে। ফলে যেমন কোটি কোটি টাকা লোকসান গুণতে হবে সরকারের তেমনি ক্ষতিগ্রস্থ হবে এলাকার হাজার হাজার মানুষ।

এ ব্যাপারে প্রভাবশালী বালু ব্যাবসায়ী ও ড্রেজারের নিয়ন্ত্রক চুন্নু মেম্বারের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অনুমতি নিয়েই বালু তুলছি। ড্রেজারের অনুমতির ব্যাপারে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোঃ শামসুজ্জোহার কাছে মুঠোফোনে জানেতে চাইলে তিনি জানান, বালু উত্তোলনের জন্য কাউকে কোন অনুমতি দেওয়া হয়নি।

0Shares

Comment here