জাতীয়রুপসী বাংলালাইফস্টাইল

শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা।

নিজস্বপ্রতিনিধিঃ জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদের অভিযোগের মামলায় জাতীয় শ্রমিক লীগের নতুন নির্বাচিত কার্যকরী সভাপতি মোল্লা আবুল কালাম আজাদ ও তাঁর স্ত্রী কহিনুর সুলতানার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে বিশেষ জজ আদালত-৮।

২০০৮ সালে মতিঝিল থানায় দায়ের করা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় রবিবার মোল্লা আবুল কালামের ঢাকার গুলশান থানা ও গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী থানার বাড়িতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে বলেন, পরোয়ানার কপি এখনো তাদের কাছে পৌঁছায়নি।

অন্যদিকে, মোল্লা আবুল কালাম আজাদ গণমাধ্যমকে বলেন, বিষয়টি তার জানা নেই।

এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগে, গত ৯ নভেম্বর জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে আগামী তিন বছরের জন্য সংগঠনটির নতুন নেতৃত্বের নাম ঘোষণা করা হয়। সদ্য-বিদায়ী কমিটির সহ সভাপতি মোল্লা আবুল কালাম আজাদকে নতুন কমিটির কার্যকরী সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়।

 

0Shares

Comment here